শেরপুরের নকলায় ড্রাম সিডারের মাধ্যমে ৪জুন রবিবারে ৭নং টালকী ইউনিয়নের জুলহাস ও নজরুলের প্রায় ৩ একর জমিতে রোপনকৃত নেরিকা জাতের আউশ ধানের আবাদ পরিদর্শন করেন ময়মনসিংহ অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক অমিতাভ দাস। এ সময় তার সাথে ছিলেন শেরপুরের উপ-পরিচালক মোঃ আশরাফ উদ্দিন ও অতিরিক্ত উপ-পরিচালক মোঃ আঃ ছাত্তার, উপজেলা কৃষি অফিসার হুমায়ন কবির সহ সংশ্লিষ্ট ব্লকের এসএএও এবং এসএপিপিও সহ আদর্শ কৃষক মোঃ রুহুল আমীন। উপ- পরিচালক আশরাফ উদ্দিন জানান ড্রাম সিডারের মাধ্যমে ধান রোপন করতে কোন জালানী খরচ নেই এবং দক্ষ শ্রমিক হলে প্রতিদিন প্রায় ২ একর জমিতে ধান রোপন করা যাবে। এর ফলে বীজ তলা তৈরি বা রোপন করার প্রয়োজন হয় না এবং বীজ তলার সময় বাচিঁয়ে সরাসরি কুশি দেওয়া ধান ড্রাম সিডারের মাধ্যমে জমিতে রোপন করায় স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে ৭-১০ দিন আগেই এ ধান কাটা যায়। এ উপজেলায় প্রায় ১০ একর জমিতে ড্রাম সিডারের মাধামে নেরিকা জাতের ধান রোপন করা হয়েছে। তবে আবহাওয়া ভাল থাকলে এবং কৃষকগন নিয়মিত ভাবে কৃষি অফিসের পরামর্শ নিলে আসাকৃত উৎপাদন হবে।

উত্তর সমূহ